তালাকের পর মাসআলা কি? ইদ্দত কি ?

তালাকের পর মাসআলা কি? ইদ্দত কি ?

তালাক পরবর্তী স্বামী ও স্ত্রীর করনীয় মাসায়েল সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা এখানে রয়েছে। তালাকের পরবর্তী সময় "ইদ্দত কি?" এবং "ইদ্দত কত দিন পালন করতে হয়?" " তালাকের পর ইদ্দত কেন পালন করতে হবে?" "ইদ্দত কিভাবে পালন করতে হবে সে সম্পর্কে মাওলানা মোহাম্মাদ হেমায়েত উদ্দীনের "আহকামে জিন্দেগী" গ্রন্থ থেকে সুন্দর ভাবে বর্ণনা করা হয়েছে। আশা করি অনেক উপকৃত হবেন।

( স্ত্রী তালাকপ্রাপ্তা হলে বা তার স্বামীর মৃত্যু হলে যে সময়ের জন্য উক্ত স্ত্রীকে এক বাড়ীতে থাকতে হয়, অন্যত্র যেতে পারে না বা অন্য কোথাও বিয়ে বসতে পারে না, তাকে “ইদ্দত” বলে । ইদ্দতের মাসায়েল নিম্নরূপ ।)

* স্ত্রী তালাকপ্রাপ্তা হলে তালাকের তারিখের পর পূর্ণ তিন হায়েয (পিরিয়ড) অতিবাহিত না হওয়া পর্যন্ত উক্ত স্ত্রীর পক্ষে অন্য কোথাও বিয়ে বসা হারাম ।

* উক্ত ইদ্দতের সময়ে তাকে স্বামীর বাড়ীতেই নির্জন বাসস্থানে থাকতে হবে ।

* উক্ত স্ত্রী বয়স কম হওয়ার কারণে বা বৃদ্ধ হওয়ার কারণে হায়েয না আসলে ( পিরিয়ড না হলে ) তিন হায়েযের পরিবর্তে পূর্ণ তিন মাস উপরােক্ত নিয়মে ইদ্দত পালন করতে হবে।

* গর্ভাবস্থায় তালাক হলে সন্তান প্রসব হওয়া মাত্রই ইদ্দত শেষ হয়ে যাবে, চাই যত তাড়াতাড়ি প্রসব হােক কেন ।

* হায়েযের অবস্থায় তালাক হলে সে হায়েযকে ইদ্দতের মধ্যে ধরা যাবে না। সে হায়েয বাদ দিয়ে পরবর্তী পূর্ণ তিন হায়েয ইদ্দত পালন করতে হবে।

* যদি কোন স্ত্রীর সাথে স্বামীর সহবাস বা নির্জনবাস হওয়ার পূর্বেই স্বামী তাকে তালাক দিয়ে দেয়, তাহলে তাকে ইদ্দত পালন করতে হয় না ।

* তালাকে বায়েন হলে ইদ্দত পালন করার সময় (পূর্ব) স্বামী থেকে সতর্কতার সাথে পূর্ণ মাত্রায় পর্দা রক্ষা করে চলতে হবে। তবে স্বামী কর্তৃক অবৈধভাবে আক্রান্ত হওয়ার প্রবল আশংকা থাকলে সেখান থেকে সরে অন্যত্র গিয়ে ইদ্দত পালন করাই সমীচীন হবে ।

* কোনাে বিয়ে যদি অবৈধ হয় এবং সহবাসও হয়, তাহলে পুরুষ যখন তাকে পরিত্যাগ করবে তখন থেকে ইদ্দত পালন করতে হবে ।

* যে স্ত্রীর স্বামী মারা যায় তার ইদ্দত হল চার মাস দশ দিন আর গর্ভবতী হলে তার ইদ্দত সন্তান প্রসব হওয়া পর্যন্ত ।

* স্বামীর মৃত্যু হলে মৃত্যুকালে স্ত্রী যে বাড়ীতে ছিল ইদ্দত পালন করার

সময় রাতদিন সে বাড়ীতেই থাকতে হবে । অবশ্য গরীব হলে এবং বাইরে গিয়ে কাজকর্ম ব্যতিরেকে খাওয়া পরার ব্যবস্থা না থাকলে দিনের বেলায় কাজের জন্য বাইরে যেতে পারবে, কিন্তু রাতের বেলায় সে বাড়ীতেই থাকতে হবে । বাড়ীতে নিজেদের একাধিক ঘর বা একাধিক কামরা থাকলে যেকোনাে ঘর বা যেকোনাে কামরায় থাকতে পারবে। নির্দিষ্ট একটা স্থানেই আবদ্ধ থাকা জরুরি নয়। বাড়ির বারান্দা বা উঠানেও বের হতে পারবে ।

* স্বামীর মৃত্যু চাঁদের প্রথম তারিখে হলে চাঁদের হিসাবে চার মাস দশ দিন ধরা হবে । আর চাঁদের প্রথম তারিখ ছাড়া অন্য যেকোনাে তারিখে মৃত্যু হলে ৩০ দিনের চার মাস এবং তারপর ১০ দিন অর্থাৎ, ১৩০ দিন ইদ্দত পালন করবে ।

* স্ত্রী ঋতুবতী বা গর্ভবতী না হলে যদি তাকে তালাক দেয়া হয়, তাহলে চাঁদের ১ম তারিখে তালাক হলে চাঁদের হিসাবে তিন মাস আর অন্য তারিখে তালাক হলে ৩০ দিনের তিন মাস অর্থাৎ, ৯০ দিন ইদ্দত ধরা হবে ।

* স্বামীর মৃত্যু সংবাদ পেতে দেরি হলে সংবাদ পাওয়ার পূর্বে যে সময় অতিবাহিত হয়েছে সেটাও ইদ্দতের ভিতর অতিবাহিত হয়েছে ধরা হবে। আর ইদ্দতের পূর্ণ সময় অতিবাহিত হওয়ার পর সংবাদ পেলে আর তাকে ইদ্দত পালন করতে হবে না- তার ইদ্দত ইতিমধ্যে পূর্ণ হয়ে গেছে ধরা হবে।

* * স্বামীর মৃত্যু হলে বা তালাকে বায়েন হলে স্ত্রীকে শােক পালন করতে হয়। এ সম্পর্কে জানার জন্য দেখুন (.......) ।

মহান আল্লাহ তা\'আলা আমাদের সবাইকে বোঝার এবং সঠিক ভাবে আমল করার তৌফিক দান করুক। আল্লাহর হুকুম মত, শরীয়ত সম্মত ও প্রিয় নবী হযরত মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের আদর্শে জীবন যাপন করার তৌফিক দান করুক। আমিন।


By SHAJAL In 2021-11-22 06:04 am এই লেখাটি 36,891 বার পড়া হয়েছে

SHAJALBD is a Real File Downloader Sub Site and does not upload or host any files on it's server. If you are a valid owner of any content listed here & want to remove it then pleases send us an DMCA formatted takedown notice at [email protected] We will remove your content as soon as possible. We will remove your content as soon as possible.